SSC উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী ও মেডিকেল টেকনোলজি কোর্স [পর্ব-১]!!!


SSC উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী ও মেডিকেল টেকনোলজি কোর্স [পর্ব-১]!!!



ফিজিওথেরাপি টেকনোলজি

ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা বিজ্ঞানের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই বিষয়টিতে যারা ডিপ্লোমা ডিগ্রি গ্রহণ করবে তারা বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা সহ জনগণের পূনর্বাসনে বিশেষ ভূমিকা করতে সক্ষম হবে। ফিজিওথেরাপিস্টরা যে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে কাজ করে থাকে তার মধ্যে মাসকুলোস্কেলিটাল, কার্ডিওপ্লামোনারি, নিওরোলজি, অর্থোপেডিক্স সহ অন্যান্য শাখা যেমন- চর্ম ও গাইনি শাখায় কাজ করে থাকে। বর্তমানে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধীনে বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি ০৫(পাঁচ) বছর মেয়াদী রাষ্ট্রীয় চিকিৎসা অনুষদ এবং বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ০৪(চার) বছর মেয়াদী কোর্সটি পরিচালিত হচ্ছে। বাংলাদেশ সহ উন্নত বিশ্বের ফিজিওথেরাপিস্টদের চাহিদা রয়েছে। দেশের প্রতিটি হাসপাতালে এবং ব্যক্তিগত ভাবে একজন ফিজিওথেরাপিস্ট প্রায় একজন ডাক্তারের সমতুল্য উপার্জন করতে সক্ষম। এছাড়া বিদেশে ও ফিজিওথেরাপীষ্টদের চাহিদা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যার ফলে বিদেশে কাজ করার ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে এবং আমাদের দেশ থেকে প্রতিবছর কানাডা, আমেরিকা, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া সহ বিভিন্ন দেশে ফিজিওথেরাপিস্ট নিয়োজিত আছেন।



ভর্তির যোগ্যতা:

এস.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় যে কোন গ্রুপ থেকে নূন্যতম জিপিএ ২.৫০ পেয়ে উত্তীর্ণ।

ফিজিওথেরাপি পড়তে যে সমস্ত ল্যাব প্রয়োজন

  • Anatomy Lab
  • Physiology Lab
  • Community Medicine Lab
  • Micro Biology Lab
  • Computer Lab
  • Physiotherapy Lab
  • Physics Lab
  • Chemistry Lab

ফিজিওথেরাপির চাকরির ক্ষেত্রঃ

  • বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি
  • মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
  • জেলা হাসপাতাল ও থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
  • এনজিও, বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে।
  • স্পোর্টস ক্লাব ও পুর্নবাসন কেন্দ্রে।

ফিজিওথেরাপিতে উচ্চ শিক্ষার সুযোগঃ-

  • ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সরকারি  IHT, National Institute of Trumatology and Orthopedic Rehabiliation, Center for the Rehabilitation of the Paralyzed-এ G B.Sc in Physiotherapy  তে উচ্চশিক্ষার সুযোগ আছে।
  • এছাড়াও বেসরকারি ভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সাইক ইনস্টিটিটিউ অব মেডিকেল টেকনোলজিতে Sc in Physiotherapy তে উচ্চশিক্ষার সুযোগ আছে।

ফার্মেসি টেকনোলজি

হেলথ সাইন্স এবং কেমিক্যাল সায়েন্সের ঠিক মাঝামাঝি জায়গায় ফার্মেসি বিষয়টির অবস্থান। এই পেশায় একজন ফার্মাসিস্টের দায়িত্ব নিয়মিত ঔষধের ব্যবহার নিদিষ্ট করা। Diploma in Pharmacy কোর্সটি যারা সম্পন্ন করবে তারা সরকারী অথবা বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ পাবে।
মেডিকেল সাইন্সের দ্রুত উন্নতির ফলে প্রতিদিনই আসছে বাজারে নতুন নতুন ঔষধ। আমাদের বিপুল জনগোষ্টির কারণে ফার্মাসিস্টের চাহিদা ক্রমাগত ভাবে বেড়েই যাচ্ছে। বিদেশে বিরাট অংকের ঔষধ আমাদের দেশ থেকে রপ্তানী হচ্ছে। রপ্তানির সুযোগ যত বাড়ছে, ফার্মাসিস্ট পেশার গুরুত্ব দিন দিন তত বৃদ্ধি পাচ্ছে।



ভর্তির যোগ্যতা:

এস.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় যে কোন গ্রুপ থেকে নূন্যতম জিপিএ ২.৫০ পেয়ে উত্তীর্ণ।

ফার্মেসি পড়তে যে সমস্ত ল্যাব প্রয়োজন

  • Anatomy Lab
  • Physiology Lab
  • Community Medicine Lab
  • Micro Biology Lab
  • Computer Lab
  • Pharmacy Lab
  • Physics Lab
  • Chemistry Lab

চাকরির ক্ষেত্রসমূহঃ

  • সরকারি/ বেসরকারি মেডিকেল কলেজসমূহ এবং সরকারি/ বেসরকারি হেল্থ টেকনোলজি ইনস্টিটিউটে নিয়োগ।
  • রিটেল ফার্মাসিস্ট হিসেবে নিয়োগ।
  • ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফার্মাসিস্ট হিসেবে নিয়োগ।
  • হসপিটাল ফার্মাসিস্ট হিসেবে নিয়োগ।
  • রিসার্চ ফার্মাসিস্ট হিসেবে নিয়োগ।
  • বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানীতে নিয়োগ।
  • আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ।
  • বিদেশে চাকুরির সুযোগ।

ল্যাবরেটরি মেডিসিন (প্যাথলজি)

সঠিক রোগ নির্ণয়ের কাজটাই মূলত একজন টেকনোলজিস্ট এর দায়িত্ব। যে কাজটাই করে একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট। সঠিক রোগ নির্নয়ের উপর নির্ভর করে রোগীর সুস্থতা। মেডিকেল টেকনোলজিষ্টদের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে চিকিৎসক রোগীর নির্ভূল ব্যবস্থাপত্র প্রদান করেন। এটি একটি প্রফেশনাল ও সেবামূলক কাজ। ৪(চার) বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা কোর্স সম্পন্ন করার মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থী মেডিকেল টেকনোলজিস্ট হিসাবে নিজের ক্যারিয়ার গঠন করতে পারে।

ভর্তির যোগ্যতা:

এস.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় যে কোন গ্রুপ থেকে নূন্যতম জিপিএ ২.৫০ পেয়ে উত্তীর্ণ।

প্যাথলজি পড়তে যে সমস্ত ল্যাব প্রয়োজনঃ

  • Anatomy Lab
  • Physiology Lab
  • Community Medicine Lab
  • Micro biology Lab
  • Clinical Pathology
  • Bio-Chemistry Lab
  • Histopathology & Cytopathology Lab
  • Haematology & Blood transfusion Lab
  • Computer Lab
  • Physics Lab
  • Chemistry Lab

চাকরির ক্ষেত্রসমূহঃ

  • সরকারি/ বেসরকারি মেডিকেল কলেজ,হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক, ক্লিনিক সমূহে টেকনোলজিস্ট হিসাবে চাকরির সুযোগ।
  • সরকারি/ বেসরকারি হেলথ টেকনোলজি ইনস্টিটিউটে ল্যাব ইন্সট্রাকটর হিসাবে নিয়োগ।
  • বিদেশে চাকরির সুযোগ ও আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ।
  • ডিপ্লোমা শেষ করেই চিফ টেকনোলজিস্ট, ডিপার্টমেন্টাল সুপার ভাইজার, ল্যাব ইনচার্জ এবং ল্যাব সাইন্টিস্ট অফিসার পর্যন্ত হতে পারে।

প্যাথলজিতে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ:

  • ঢাকা, রাজশাহী ও চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সরকারি IHT তে Sc in Health Technology (Pathology) তে উচ্চশিক্ষার সুযোগ আছে।
  • এছাড়াও বেসরকারিভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি, ঢাকাতে B.Sc সহ Health Technology (Pathology) তে উচ্চশিক্ষার সুযোগ আছে।

No comments

ALBDSITE.TK. Powered by Blogger.